No icon

কুমিল্লায় নাশকতার পরিকল্পনায় ৩১ জনের বিরুদ্ধে মামলা ঃ গ্রেপ্তার -২

খন্দকার দলেোয়ার হসেনে,কুমিল্লা প্রতিনিধিঃ
 কুমিল্লার ব্রাহ্মণপাড়া থানা পুলিশ উপজেলার অলুয়া গ্রামে নাশকতা পরিকল্পনা করার সময় অভিযান চালিয়ে ২ জনকে গ্রেপ্তার করে কুমিল্লা জেল হাজতে প্রেরণ করেছে। এ ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে বিশেষ ক্ষমতা আইনে ২১ জন নামীয় ও অজ্ঞাত ১০ জনকে আসামী করে থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে। থানা সূত্রে জানা যায়, উপজেলার মালাপাড়া ইউনিয়নের অলুয়া সোবহান মার্কেটের পূর্বপাশে মাজাহারুল ইসলামের দোকানে ও সামনে রাস্তার উপর গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বিএনপি ও জামায়াতের ৩০/৪০ জন নেতাকর্মী সমবেত হয়ে সরকারী গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা সমূহের উপর আক্রমন এবং সরকারের বিরুদ্ধে নাশকতামূলক কর্মকান্ড করার জন্য উদ্যোগ নেয়। এমন খবরের ভিত্তিতে থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এসএএম শাহজাহান কবিরের নেতৃত্বে এসআই তীথংকর দাশসহ সঙ্গীয় ফোর্স ঘটনাস্থলে উপস্থিত হলে নেতাকর্মীরা দৌড়ে পালিয়ে যাবার সময় ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ দোকানের মালিক অলুয়া সরকার বাড়ির মৃত মনিরুজ্জামান সরকারের ছেলে মোঃ মাজাহারুল ইসলাম সরকার (৪৬) এবং চন্ডিপুর শাহজাহান দারোগা বাড়ির মৃত ইউনুছ মিয়ার ছেলে বাবুল আহাম্মদ ভূইয়া (৫২)কে গ্রেপ্তার করে থানায় নিয়ে আসে। ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ একটি প্লাস্টিকের বস্তা ভর্তি পেট্রোল বোমা সদৃশ কোকা কোলার কাচের বোতল ৫টি, যাহার প্রতিটিতে পেট্রোল ভর্তি এবং পেট্রোলে পাটের সুতলি ডুবানো অবস্থায় সুতলির বাকি অংশ বোতলের বাহিরে, যার প্রতিটি বোতলের মুখ কস্টেপ দ্বারা মোড়ানো। ৮টি বাশেঁর লাঠি ও একটি প্লাস্টিকের বস্তা ভর্তি ইটের ভাংগা কিছু টুকরা। পুলিশ জানায়, গ্রেপ্তারকৃত ব্যাক্তিরা স্বীকার করে খালেদা জিয়ার মুক্তিসহ ৭ দফা দাবী আদায়ের লক্ষে সরকার ও প্রশাসনকে চাপে রাখার জন্য সরকারী স্থাপনাসহ আন্ত:জেলা সড়কে চলাচলরত জনসাধারণের ব্যবহৃত যানবাহনে আক্রমন করে জনমনে আতংক সৃষ্টি করার জন্য তারা সলা-পরামর্শ করছিল। থানার ওসি ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, থানায় বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলা হয়েছে। গ্রেপ্তারকৃত আসামীদের গতকাল বুধবার কোর্টের মাধ্যমে কুমিল্লা জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে এবং অন্য আসামীদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা অব্যহত রয়েছে।  
 

Comment As:

Comment (0)